নড়াইলের পল্লীতে হিন্দু মহিলাকে মারপিট,থানায় লিখিত অভিযোগ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উজ্জ্বল রায় (নড়াইল জেলা) প্রতিনিধিঃ-     

নড়াইলের কুন্দসি মালোপাড়া গ্রামের রাধারানী ৪৫/ নামে এক নারীকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এলাকাবাসী ও রাধারানীর সাথে কথা বলে জানা যায় কুন্দসি মালোপাড়া গ্রামের মাদক সেবনকারী চিরঞ্জিত ওরফে (বান্টি)  (১৯) পিং মৃত রনজিত  বিশ্বাস, রাধারানী কে গত ১২/৮/২০২০ রাত আনুমান ৮ টার দিকে  মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় বেদম মারধর করেছে। 

এলাকাবাসী বলেন এই মারামারি সূত্রপাত ঘটে মাদক সেবন করা নিয়ে, চিরঞ্জিত ওরফে (বান্টি) এর ঘর আর রাধারানীর ঘর পাশাপাশি সম্পর্কে তারা কাকি ও দেবরের ছেলে, দীর্ঘদিন ধরে মাদক সেবন করে আসছিল বান্টি ও বাড়িতে বহিরাগত লোক নিয়ে এসে তার ঘরে মাদক খেতো।

তার সহযোগিতায় ছিল,তার চাচা সঞ্জয় বিশ্বাস (৪৫)এরপর রাধারানী বলেন অামরা বান্টি কে অনেক বার নিষেধ করেছি সেটা সে কর্ণপাত করে নাআরো আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়। 

তিনি অারো বলেন এর অগে আমাকে তিন,চার বার মারধর করেছে, এই বান্টি সেটা স্থানীয় লোকজন থেকে মীমাংসা করে দিয়েছে।

কিন্তু এই মাদক সেবনকারী বান্টি ও তার সহোযগী সঞ্জয় স্থানীয় মাতুব্বারদের অমান্য করে বার বার তাদের তান্ডব বার বার চালাচ্ছে। 

এরপর রাধারানীর ছেলে সম্রাট বলেন এই বান্টি কে পুলিশে অনেক বার মাদক সেবন করা কালে ধরার জন্য চেস্টা করেছে, কিন্তু সে সঞ্জয়ের সহযোগিতায় কৌশলে পালিয়ে গিয়েছে।

সম্রাট আরো বলেন, এই চিরঞ্জিত (ওরফে) বান্টি কে তার পরিবারের লোক এর আগে যশোর মাদক নিরাময় কেন্দ্রে ৬/ মাস  রেখেছিলো কিন্তু সে সুস্থ হয় নাই, তার ঘরে ইচ্ছামত সাউন্ড বক্স বাজিয়ে সারারাত গান চালায় ও মাদক সেবন করে কিছু বললে বিশ্রী ভাষায় গালিগালাজ করে মারতে আসে। 

সম্রাট অারো জানাই সর্বশেষ গত ১২/৮/২০২০ তারিখ : রাত ৮ টার দিকে চিরঞ্জিত ও তার সাথে থাকা ৩/৪/ জন লোক তার উঠানের উপর বসে মাদক সেবন করতে থাকে তখন আমার মা তাদের এখান থেকে চলে যেতে বলে, এসময় চিরঞ্জিত সঞ্জয়  ক্ষিপ্ত হয়ে আমার মায়ের উপর আক্রমণ করে।

তার সহযোগিতায় ছিলো চায়না বিশ্বাস এরা মিলে আমার মাকে বেদম মারপিট করে তখন আমি তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

সেখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে নড়াইলের লোহাগড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *