কমলগঞ্জে পৌর নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ শেষে প্রচারনায় সরব পৌর এলাকা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অঞ্জন প্রসাদ রায় চৌধুরী,কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:-

মৌলভীবাজারে দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দীতাকারী মোট ৪৬ জন প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়েছে।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের সঙ্গে নির্বাচনী আচরণবিধি নিয়ে নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম তালুকদারের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাসরিন চৌধুরী, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ) সার্কেল মো. আশরাফুজ্জামান, কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. সোহেল রানা, আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তা নাছিমা আক্তার প্রমুখ।

মতবিনিময় শেষে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই জমজমাট প্রচারে নেমে পড়েন প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকরা।এবারের কমলগঞ্জ পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থীরা হলেন উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও বর্তমান মেয়র মো. জুয়েল আহমেদ (নৌকা), জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি বর্তমান কাউন্সিলর ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো.আনোয়ার হোসেন (নারিকেল গাছ), উপজেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক ঠিকাদার সতন্ত্র প্রার্থী মো. হেলাল মিয়া (জগ),উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি বিএনপি নেতা মো. আবুল হোসেন (ধানের শীষ)।

এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৯টি ওয়ার্ডে ৩১ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১১ জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে নেমেছেন। আগামী ১৬ জানুয়ারি কমলগঞ্জ পৌরসভার এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।।

প্রচার প্রচারনার প্রথম দিনে সরজমিন ঘোরে দেখা যায় প্রার্থীরা তাদের কর্মীসমর্থক নিয়ে পৌর এলাকার ভোটারদের কাছে দোয়া চেয়ে লিফলেট বিতরন করে ভোট প্রার্থনা করছেন।

তবে পৌর এলাকার ভোটারদের মাঝে ভোটের চিত্র অন্য পৌর নির্বাচনের চেয়ে ভিন্ন বলে নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন।এটির কারন হিসাবে তিনি মনে করেন আওয়ামীলীগ দল মনোনীত একজন ও আওয়ামীলীগের দুজন বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার কারনে সাধারন ভোটারের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।তিনি বলেন এক্ষেত্রে বিএনপি দলীয় একক প্রার্থী থাকার কারনে তারা সুবিধা জনক অবস্হানে রয়েছেন।

তবে নির্বাচনী প্রচারনার প্রথম দিনে চারজন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে  বিএনপি দলীয় মেয়র প্রার্থীর প্রচার প্রচারনা চোখে পড়েনি।মাঠে প্রচার প্রচারনা সরগরম রেখেছেন বর্তমান মেয়র সহ আওয়ামীলীগ সমর্থক অন্য দুজন মেয়র প্রার্থী।

প্রচার প্রচারনায় পিছিয়ে নেই কমিশনার পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা কারি কমিশনার প্রার্থী সহ সংরক্ষিত মহিলা কমিশনার প্রার্থীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *